স্বর্গের সৌন্দর্যে হারিয়ে যাওয়ার মতো একটি দেশ মালদ্বীপ। প্রায় ১ হাজার দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত এই দেশে আছে পরিষ্কার নীল জলরাশি, সাদা বালুময় সৈকত, শত শত খেজুর গাছ। দ্বীপের উপরিভাগ থেকে যেমন উপভোগ করতে পারবেন এর সৌন্দর্য, ঠিক তেমনি পানির তলদেশেও খুঁজে পাবেন প্রকৃতির অসাধারণ রূপ। এমনকি কিছু রিসোর্ট আছে যাদের রুম পানির নিচেই বিশেষ ভাবে তৈরি করা!

093c31985982c3057d6b2e440229ce99-589446e958725 (1)

কী দেখবেন

মালদ্বীপে সময় কাটানোরমতো অনেক কিছুই আছে। রাজধানী মালেতে বেশ কিছু পুরাতন মসজিদ, মিউজিয়াম এবং আর্ট গ্যালারী রয়েছে। সমুদ্রবিলাস হিসেবে ডাইভিংও করা যায়। ডাইভিং করলে সামুদ্রিক প্রাণীগুলোকে খুব কাছ থেকে দেখা যায়। এটা এক ধরনের অ্যাডভেঞ্চারও বটে। যারা ডাইভ করতে চাননা তাদের জন্য রয়েছে হোয়েল সাবমেরিন। এছাড়া ফিশিং, সার্ফিং, প্যরাসেইলিং, স্কিংএর ব্যবস্থাও আছে। এক কথায় বলা যায়, এই দ্বীপপুঞ্জে ঘুরতে আসলে কখনই হতাশ হবেননা। বরং বারবারই ফিরে আসতে ইচ্ছে করবে।

29d1cf2bd2c36bf7f8a38436f00d00ad-589446f14be61 (1)

আবশ্যিক খরচ

মালদ্বীপ ঘোরার জন্য একটু ব্যয়বহুল জায়গা। রাজধানী মালে ছাড়া এই দ্বীপপুঞ্জতে আর কোন হোটেল নেই, আছে শুধু রিসোর্ট। এখানকার রিসোর্টের সর্বনিম্ন ভাড়া ৭৫০ রুপি যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪ হাজার টাকা।
খাবারের ক্ষেত্রে সব দায়দায়িত্ব রিসোর্টের। রিসোর্টের ভাড়ার সাথেই খাবারের দাম অন্তর্ভুক্ত থাকে। এছাড়া মালের সবচেয়ে বড় দ্বীপে কিছু স্থানীয় বাজার এবং খাবারের দোকানও রয়েছে যেখানে খাবারের খরচ জনপ্রতি ৮০ রুপির মতো। এছাড়া দ্বীপপুঞ্জের ভেতরে যাতায়াতের ব্যবস্থাও রিসোর্ট করে দেয় ।

 94f62bc07f0589b08cf22cc25307b137-589446e3a5668 (1)

কীভাবে খরচ কমাবেন

মধ্যপ্রাচ্য অথবা এশিয়া থেকে কিছু নির্দিষ্ট এয়ারলাইন্সে কিছুটা কম খরচে যাওয়া যায় মালদ্বীপ। এছাড়া অন্যান্য জায়গা থেকে প্লেনে যাওয়া বেশ ব্যয়বহুল। মালদ্বীপ গিয়ে যদি আপনি ফেরি সার্ভিস ব্যবহার না করেন তাহলে আপনার খরচ কয়েকগুণ বেড়ে যাবে। সেক্ষেত্রে ফেরির সময়গুলো জেনে নেয়া জরুরি। তা নাহলে কোনও দ্বীপে যদি আটকা পরে যান, তবে প্লেন ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা।
রিসোর্টের পাশাপাশি থাকতে পারবেন স্থানীয়দের বাড়িতেও। সেক্ষেত্রে খরচ আরও কমে যাবে। এখানে থাকার আরেকটি সুবিধা হলো স্থানীয় সংস্কৃতিরও দেখা মিলবে। রিসোর্টের খাবারের দাম প্রচুর। তাই বাইরে রেস্টুরেন্ট থেকে খাওয়াই ভালো। এতে খরচও অনেক কমে যাবে।

নিচের বাটনগুলোর সাহায্যে আপনার পছন্দের সামাজিক মাধ্যমগুলোতে বন্ধুদের সাথে খবরটি শেয়ার করুন

...+